Logo
শিরোনাম :
পাঁচ হাজার বন্যার্তদের মুখে খাবার তোলে দিল ‘ইউনাইটেড নবীগঞ্জ’ বাংলাদেশে স্বপ্নের পদ্মা সেতু’র উদ্বোধন, গ্রিসে উদযাপন করল দূতাবাস নবীগঞ্জে বন্যার পানিতে ভেসে আসলো যুবকের লাশ পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে নবীগঞ্জ থানার আনন্দ র‌্যালী শ্রেষ্ঠ হিসেবে শুদ্ধাচার পুরস্কারে জন্য মনোনীত হলেন নবীগঞ্জের ইউএনও শেখ মহিউদ্দিন নবীগঞ্জে বন্যার্তদের মাঝে আব্দুর রহমান ফাউন্ডেশনের আর্থিক সহায়তা প্রদান দেশে বন্যায় মানুষ কষ্টে আছে : সরকার পদ্মাসেতু উদ্বোধনে আমোদ-ফুর্তিতে ব্যস্ত-ড. রেজা কিবরিয়া ‘শুকনো জায়গায় মাকে কবর দিও’ নবীগঞ্জে উল্টে গেলো বন্যার্তদের খাদ্যবাহী ট্রাক নবীগঞ্জে ভয়াবহ রূপ নিয়েছে বন্যা : শতাধিক গ্রাম প্লাবিত : সবাইকে এগিয়ে আসার আহবান

সুনামগঞ্জে নুর হত্যা মামলা : ছয় জনকে চার্জশিট থেকে বাদ দেয়ার অভিযোগ

করেসপন্ডেন্ট,সুনামগঞ্জ
জাগো নিউজ : মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট, ২০২০

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের ঘাঘটিয়া গ্রামে শহীদনূর হত্যা মামলায় ৭ আসামির মধ্যে চার্জশিট থেকে ৬ জনকে অব্যাহতি দেয়ায় ন্যায় বিচারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে নিহতের পরিবার।

মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) দুপুরে সুনামগঞ্জ রিপোর্টার্স ইউনিটি কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিযোগ করেন মামলার বাদি নিহতের ভাই গোলাম নুর।

তিনি বলেন, গত ৩ মার্চ সকালে পূর্ব বিরোধের জেরে ঘাঘটিয়া গ্রামের নাসির উদ্দিনের ছেলে শহীন নুরকে গ্রামের গোলাম কাদিরের নেতৃত্বে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। ছেলেকে রক্ষা করতে গিয়ে গুরুতর জখম হন বাবাও। হত্যাকান্ড সংঘটনের একদিন পর ঘাঘটিয়া গ্রামের গোলাম কাদির, শহীদুল ইসলাম, দ্বীন ইসলাম, তাওহিদ, হেফাজুল ও আজহার মিয়া এবং টেকাটুকিয়া গ্রামের পারভেজ মিয়াকে আসামি করে তাহিরপুর থানায় মামলা দায়ের করেন নিহত ভাই গোলাম নুর।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, প্রকাশ্য দিবালোকে সাক্ষীদের সম্মুখে সংঘটিত একটি নৃশংস ঘটনার সাথে সকল আসামি নানাভাবে সম্পৃক্ত থাকলেও সম্প্রতি মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কর্তৃক আদালতকে দেওয়া অভিযোগপত্রে শুধুমাত্র গোলাম কাদিরকে রেখে বাকি ছয় আসামিকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। মামলার হুকুমের আসামি শহীদুল ইসলামও অভিযোগ থেকে অব্যাহতি পেয়ে গেছেন।

পরিবারের অভিযোগ, মামলার সাত আসামির মধ্যে ছয়জনকে অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেওয়ায় আমরা ন্যায় বিচার প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত হয়ে নিহতের পরিবার হতাশার মধ্যে রয়েছেন। অব্যাহতিপ্রাপ্ত আসামিরা স্থানীয়ভাবে প্রভাবশালী হওয়ায় প্রতিনিয়ত হুমকি ধমকিরও প্রদান করছে বাদিপক্ষকে। অব্যাহতি পাওয়া ব্যক্তিদের দ্বারা আগামীতে আরও বড় ধরনের অপরাধ সংঘটনের আশঙ্কা থাকায় নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে নিহতের পরিবার।

ন্যায় বিচারের স্বার্থে নৃশংস এই হত্যাকান্ডের ঘটনার নিরপেক্ষ পুনঃতদন্ত পূর্বক প্রকৃত অপরাধীদের অভিযোগপত্রে যুক্ত করে আদালতে সঠিক তথ্য উপস্থাপন করার দাবি জানায় নিহতের পরিবার।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্যান্য সংবাদ
Theme Created By ThemesDealer.Com
x
error: কপি করা নিষেধ !
x
error: কপি করা নিষেধ !