Logo
শিরোনাম :
নবীগঞ্জে চা-শ্রমিকদের মানববন্ধন শোক দিবসে ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী বিতরণ হ্যাকারদের কবলে জাগো নিউজের ফেসবুক পেইজ : বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান বাউসা ইউনিয়ন পরিষদকে সৌদি দূতাবাস বানিয়ে অভিনব প্রতারণা ॥ আটক ৩ বাহুবলে গাছ খাওয়ায় ছাগল আটক, এমপি কল দেয়ার পরও ছাড়েনি পুলিশ কানাডায় সড়ক দুর্ঘটনায় বীর মুক্তিযোদ্ধা সুরঞ্জন দাশ স্ত্রীসহ নিহত গ্রিসে বাংলাদেশ দূতাবাসে বঙ্গমাতা ও শেখ কামাল এর জন্মবার্ষিকী পালন নবীগঞ্জে মায়ের স্বপ্ন পূরণে হেলিকপ্টারে চড়ে বরের বাড়ি গেলেন সুরভী খোঁজ মিলছে না সিলেট ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সভাপতির এবার মাল্টার ভিসা মিলবে ঢাকা থেকেই!

দুই শিশুসহ মাকে গলা কেটে হত্যা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
জাগো নিউজ : বুধবার, জুন ১৬, ২০২১

সিলেটের গোয়াইনঘাট একই পরিবারের ৩ জনকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।। গুরুতর অবস্থায় আরও একজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে উপজেলার ফতেহপুর ইউনিয়নের বিন্নাকান্দি দক্ষিণ পাড়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

নিহতদের মধ্যে একজন নারী ও বাকী দুজন ওই নারীর শিশু সন্তান। আহত ব্যক্তি ওই নারীর স্বামী বলে জানা গেছে।

নিহতরা হলেন- আলিমা বেগম (৩০), ও তার দুই সন্তান মিজান (১০) এবং তানিশা (৩)। এছাড়া গুরুতর আহত হয়েছেন আলিমা বেগমের স্বামী হিফজুর রহমান। তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, গতরাতের কোন এক সময়ে কে বা কারা রাতে ওই পরিবারের ওপর হামলা চালিয়ে পালিয়ে যায়।

নিহতদের সকলের গলা ও মাথায় ধারালো অস্ত্রের কোপ দেখা গেছে।

স্থানীয় লোকজন জানান, বুধবার সকালে অনেক বেলা পর্যন্ত ঘুম থেকে উঠছিলেন না হিফজুরের পরিবারের সদস্যরা। দেরী দেখে প্রতিবেশিরা হিফজুরের ঘরের সামনে যান। এসময় ভেতর থেকে কান্নার শব্দ শুনে দরজায় ধাক্কা দেন তারা।

প্রতিবেশিরা জানান, দরজার সিটকিনি খোলাই ছিলো। ভেতরে প্রবেশ করে খাটের মধ্যে তিন জনের জবাই করা মরদেহ ও হিফজুরকে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখতে পান তারা। পরে পুলিশে খবর দিলে গোয়াইনঘাট থানার এসআই মহসিনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ গিয়ে লাশ তিনটি উদ্ধার করেন এবং হিফজুরকে হাসপাতালে পাঠান। হিফজুরের শরীরের বিভিন্ন স্থানে দায়ের কোপ রয়েছে।

পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে, মরদেহগুলো উদ্ধারের কাজ করছে। নিহত নারীর স্বামী গুরুতর অবস্থায় ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

গোয়াইনঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল আহাদ বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে ওসমানী হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। কারা এই হত্যআকান্ড ঘটিয়েছে তা খুঁজে বের করার চেষ্টা করছি।

সিলেট জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (গণমাধ্যম) অফিসার এএসপি লুৎফুর রহমান জানান, ঘটনা তদন্তে পুলিশের একাধিক টিম কাজ করছে। তবে, কী কারণে এই হত্যাকাণ্ড তা এখনো নিশ্চিত করা যায়নি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

অন্যান্য সংবাদ
Theme Created By ThemesDealer.Com
x
error: কপি করা নিষেধ !
x
error: কপি করা নিষেধ !