Logo
শিরোনাম :
নবীগঞ্জে বিদ্রোহী প্রার্থী হয়ে আ.লীগের সভাপতিসহ বহিষ্কার হলেন যারা… গ্রিসে দূতাবাসের উদ্যোগে বাংলাদেশিদের জন্য রন্ধন শিল্পের ওপর মৌলিক প্রশিক্ষণ আলোচনায় বর্তমান ইউপি সদস্য আরজদ আলী লাল-সবুজ সমাজ কল্যাণ পরিষদের উদ্যোগে পঞ্চম মেধা-বৃত্তি অনুষ্ঠিত নবীগঞ্জে তেলের লরি ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষ : নিহত ২ উৎসব মুখর পরিবেশে নবীগঞ্জের ১৩ ইউনিয়নে ৭১০ জনের মনোনয়ন দাখিল স্বাস্থ্যের ফাইল গায়েবের ঘটনায় তোলপাড় যুক্তরাজ্য বিএনপির সম্পাদকের শ্বশুড়কে মনোনয়ন দেয়ায় মানববন্ধন-বিক্ষোভ অব্যাহত হাজার হাজার মানুষের ভালবাসায় অশ্রুসিক্ত নয়নে মিয়া মোঃ ইলিয়াছের বিদায় যুক্তরাজ্য বিএনপির সম্পাদকের শ্বশুড় এওলা মিয়াকে মনোনয়ন দেয়ায় বিক্ষোভ

গজনাইপুর ইউপি : চাল আত্মসাতের দায়ে মুকুল বরখাস্ত : ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান নুরু

করেসপন্ডেন্ট,নবীগঞ্জ
জাগো নিউজ : বুধবার, ডিসেম্বর ২, ২০২০

নবীগঞ্জ উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদ থেকে ইমদাদুর রহমান মুকুলকে ফের বরখাস্ত করেছেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। ওই ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান-১ মাহবুবুর রহমান নুরুকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হিসেবে দায়ীত্ব পালনের জন্য নির্দেশনা দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

মঙ্গলবার বিকেলে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মহিউদ্দিন।

সূত্রে প্রকাশ সূত্রে প্রকাশ, বিগত চার বছর ধরে খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির কয়েক শতাধিক সুবিধাভোগী চাল নামে-বেনামে আত্মসাতের অভিযোগ উঠে ইমদাদুর রহমান মুকুলের বিরুদ্ধে।

পরে হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসকের নির্দেশে ও উপজেলা খাদ্য বান্ধব কমিটির সিদ্ধান্তক্রমে ৩ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটির তদন্তে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর চাল আত্মসাতের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয় কর্তৃক বরখাস্ত হয়েছিলেন চেয়ারম্যান মুকুল। গত ৭ জুলাই ইমদাদুর রহমান মুকুলকে বরখাস্তের গেজেট প্রকাশ করে স্থানীয় সরকার বিভাগ। এর বিরুদ্ধে হাইকোর্টে ৩৯৩৭ নং পিটিশন দাখিল করেন ইমদাদুর রহমান মুকুল। ২৩ আগস্ট হাইকোর্টের বিচারপতি এম.খসরুজ্জামান ও বিচারপতি এম. মাহমুদ হাসান তালুকদারের দ্বৈত বেঞ্চ শুনানি শেষে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের আদেশ স্থগিত করে চেয়ারম্যানকে স্বপদে বহালের আদেশ দেন। এরই প্রেক্ষিতে ১০ সেপ্টেম্বর স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় কর্তৃক জারিকৃত গেজেটে স্বপদে বহাল হন ইমদাদুর রহমান মুকুল। স্বপদে বহাল হয়ে জমকালো আনুষ্ঠানিকতা ও মিষ্টি বিতরণ নিয়ে তুমুল আলোচনা-সমালোচনার সৃষ্টি হয় এলাকায়।

এরপর হাইকোর্টে স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে গত ৪ অক্টোবর সুপ্রিম কোর্ট আপীল বিভাগে দায়েরকৃত ১৪৪১ নং মামলার শুনানি শেষে বিচারপতি মোঃ নুরুজ্জামান হাইকোর্টের স্থগিতাদেশ বাতিল করেন এবং বরখাস্তের আদেশ বহাল করেন। সুপ্রিম কোর্টের আদেশের প্রেক্ষিতে গত ২২ নভেম্বর স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় চেয়ারম্যান মুকুলকে বরখাস্তের আদেশ পুনরায় কার্যকর করার জন্য হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসককে নির্দেশ দেয়া হয়।

এরই প্রেক্ষিতে হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে ‘হবিগঞ্জ স্থানীয় সরকার শাখার সহকারী কমিশনার রাজীব দাশ পুরকাস্ত স্বাক্ষরিত এক এক পত্রে ‘ইমদাদুর রহমান মুকুলের বরখাস্তের আদেশ পুনরায় কার্যকর করতে নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে নির্দেশনা দেয়া হয়। ১ ডিসেম্বর মঙ্গলবার নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মহিউদ্দিন এ আদেশ পুনরায় কার্যকর করেন। গজনাইপুর ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান-১ মাহবুবুর রহমান নুরুকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হিসেবে দায়ীত্ব পালনের নির্দেশনা দেয়া হয়।

নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মহিউদ্দিন জানান, নবীগঞ্জ উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়ন পরিষদে ইমদাদুর রহমান মুকুলের বরখাস্ত সংক্রান্ত চিঠি পাঠানো হয়েছে। এছাড়াও প্যানেল চেয়ারম্যান-১ ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হিসেবে দায়ীত্ব পালন করবেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্যান্য সংবাদ
ThemeCreated By ThemesDealer.Com
x
error: কপি করা নিষেধ !
x
error: কপি করা নিষেধ !