Logo
শিরোনাম :
আরব আমিরাতে বাংলাদেশিদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেবপাড়া ইউনিয়নে প্রধানমন্ত্রীর উপহার নগদ অর্থ বিতরণ করলেন এমপি মিলাদ গাজী নবীগঞ্জের ইনাতগঞ্জ ইউনিয়নে প্রধানমন্ত্রীর উপহার নগদ অর্থ বিতরণ মানবসেবায় প্রবাসীদের অবদান অনস্বীকার্য – এমপি মিলাদ গাজী নবীগঞ্জের মাদ্রাসা শিক্ষক মুকিত জঙ্গী সংগঠন আনসার আল ইসলামের সদস্য ! স্কটিশ পার্লামেন্টে প্রথম বাংলাদেশী এমপি নির্বাচিত হলেন নবীগঞ্জের ফয়ছল চৌধুরী ইফতারির জন্য নবীগঞ্জের শরিফাকে ‘হত্যা’, স্বামী-শ্বাশুড়ি আটক নবীগঞ্জ পৌরসভায় ১৫শ অসহায় মানুষের মাঝে প্রধানমন্ত্রী অর্থ সহায়তা বিতরণ বাউসা ইউনিয়নে ১৫শ মানুষের মাঝে ৪৫০ টাকা করে নগদ অর্থ সহায়তা বিতরণ আউশকান্দিতে ৫শ অসহায়দের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর অর্থ সহায়তা বিতরণ

নবীগঞ্জ পৌর নির্বাচন : বিএনপির প্রার্থী বিজয়ী ॥ ফলাফল প্রত্যাখান আ.লীগের

ছনি চৌধুরী / ৪৬১ বার পঠিত
জাগো নিউজ : শনিবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০২১

শান্তিপূর্ণ ও উৎসব মুখর পরিবেশ এবং কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। উক্ত নির্বাচনে অনেক কেন্দ্রীয় নেতারা অংশ নেয়ায় নবীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন ছিল দেশব্যাপী আলোচিত। দিনব্যাপী নবীগঞ্জ পৌর নির্বাচনের প্রতি নজর ছিল উৎসাহী জনতার।

কারণ উক্ত নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন নিয়ে অংশ নিয়েছিলেন বন ও পরিবেশ মন্ত্রীর জামাতা গোলাম রসুল রাহেল চৌধুরী। রাহেলকে ২৬৪ ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে টানা দ্বিতীয়বারের মতো মেয়র পদে বিজয়ী হয়েছেন বিএনপি মনোনীত প্রার্থী ছাবির আহমদ চৌধুরী (ধানের শীষ)।

বেসরকারি ফলাফল অনুযায়ী, প্রাথমিক ফলাফলে মোট ১০টি কেন্দ্রে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী বর্তমান মেয়র ছাবির আহমদ চৌধুরীর প্রাপ্ত ভোট ৫ হাজার ৭৪৯। আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী গোলাম রসুল রাহেল চৌধুরীর প্রাপ্ত ভোট ৫ হাজার ৪৮৫। স্বতন্ত্র প্রার্থী মাহবুবুল আলম সুমন (জগ) ২৬১৯ ভোট।

২৬৪ ভোটের ব্যবধানে এগিয়ে বেসরকারি ফলাফলে বিজয়ী হন ছাবির আহমদ চৌধুরী। বিএনপির সমর্থকরা নিজেদের প্রার্থীকে বিজয়ী করে আনন্দ মিছিল করেছেন। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াকে সতর্ক অবস্থানে ছিল আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। এর আগে শনিবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত এক টানা ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। ভোট চলাকালীন সময় প্রত্যেকটি সেন্টারে ভোটরদের দীর্ঘ লাইন লক্ষ্য করা যায়। বিকেল ৪টার পর শুরু হয় ভোট গণণা। পরে কেন্দ্র থেকে ভোটের ফলাফল উপজেলা কন্ট্রোল রুমে নিয়ে আসেন স্ব স্ব ভোটকেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসারবৃন্দ। রাতে ফলাফল ঘোষণা করেন রির্টানিং অফিসার সাদেকুল ইসলাম। ফলাফলে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী ছাবির আহমদ চৌধুরীকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। নবীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে বিজয়ী হয়েছেন- ১, ২ ও ৩নং ওয়ার্ডে বর্তমান মহিলা কাউন্সিলর ফারজানা মিলন পারুল (আনারস) তার প্রাপ্ত ভোট ১৮৬৪। তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী সাবেক মহিলা কাউন্সিলর জাকিয়া আক্তার লাকী (জবাফুল) প্রাপ্ত ভোট ১৬৩৬। ৪, ৫ ও ৬নং ওয়ার্ডে পূর্ণিমা রানী দাশ(আনারস) প্রতীকে বিজয়ী হয়েছেন তার প্রাপ্ত ভোট- ১৩৪৪, নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী রোকেয়া বেগম (অটোরিকশা) তার প্রাপ্ত ভোট ১১৭২।

৭, ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডে বর্তমান মহিলা কাউন্সিলর সৈয়দা নাসিমা বেগম (আনারস) প্রতীকে পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন তার প্রাপ্ত ভোট ২৫৫০, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মোছাঃ শেলী বেগম(চশমা) প্রাপ্ত ভোট ১৩৩৪। কাউন্সিলর পদে বিজয়ী হয়েছেন ১নং ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলর মোঃ জাকির হোসেন (পানির বোতল) প্রাপ্ত ভোট ৬০৭, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক কাউন্সিলর মোঃ মিজানুর রহমান (উটপাখি) প্রাপ্ত ভোট ৪৯৬।

২নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে বিজয়ী হয়েছেন আঃ ছোবহান (পানির বোতল) প্রাপ্ত ভোট ৪৯৩, নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান কাউন্সিলর মোঃ সুন্দর আলী (পাঞ্জাবি) প্রতীকে প্রাপ্ত ভোট ৪০৭। ৩নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে বিজয়ী হয়েছেন মোঃ নানু মিয়া (পানির বোতল) প্রাপ্ত ভোট ৬৮৯, নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী শাহ মোঃ রিজভী আহমেদ খালেদ(উটপাখি) প্রাপ্ত ভোট ৫৫৪। ৪নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে বিজয়ী হয়েছেন সাবেক কাউন্সিলর যুবরাজ গোপ(উটপাখি) প্রাপ্ত ভোট ৯৬৬। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রানেশ চন্দ্র দেব (টেবিল ল্যাম্প) প্রাপ্ত ভোট ৮০২।

৫ নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে বিজয়ী হয়েছেন মোঃ লুৎফুর রহমান (পানির বোতল) প্রাপ্ত ভোট ৭৬১, নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বর্তমান কাউন্সিলর সাংবাদিক এটিএম সালাম (টেবিল ল্যাম্প) প্রাপ্ত ভোট ৫৮০।

৬নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে বিজয়ী হয়েছেন- বর্তমান কাউন্সিলর জায়েদ চৌধুরী (ডালিম) প্রাপ্ত ভোট ৭৬৮, নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী শেখ মোঃ আবুল কাশেম (পানির বোতল) প্রাপ্ত ভোট ৪৫৩। ৭নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে বিজয়ী হয়েছেন কাউন্সিলর পদে বর্তমান কাউন্সিলর মোঃ কবির মিয়া (পানির বোতল) প্রাপ্ত ভোট ৮৮২, নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী রুহুল আমিন রফু (উটপাখি) প্রাপ্ত ভোট ৭৫৮। ৮নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে বর্তমান কাউন্সিলর বাবুল চন্দ্র দাশ (টেবিল ল্যাম্প) প্রতীকে ৫৭৪ ভোট পেয়ে পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন, নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী সাবেক কাউন্সিলর সন্তোষ দাস(পানির বোতল) প্রাপ্ত ভোট ৫৪৫, ৯নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে বিজয়ী হয়েছেন মোঃ ফজল আহমদ চৌধুরী (পাঞ্জাবি) প্রাপ্ত ভোট ৬৭৩, নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী শেখ জগলুল হাসান(পানির বোতল) প্রাপ্ত ভোট ৪৪৪।

এদিকে আওয়ামীলীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী গোলাম রসুল রাহেল চৌধুরী ফলাফলের পরিবর্তণের অভিযোগ এনে নির্বাচন প্রত্যাখান করেছেন । শনিবার রাতে ফলাফল ঘোষণার পর নিজ বাসভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে নৌকার প্রার্থী গোলাম রসুল রাহেল চৌধুরী অভিযোগ করে বলেন – নহরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভোট গ্রহণ শেষে ভোটকেন্দ্রের ফলাফল অনুযায়ী আমি ৯৯২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হই, কিন্তু সরকারি হিসেবে আমাকে ৬৬৯ ভোট দেখানো হয়েছে। আমাকে ইচ্ছা করে ফলাফল টেম্পারিং করে পরাজিত করা হয়েছে। আমি এবিষয়ে আইনি লড়াই করে যাবো।

উক্ত সংবাদ সম্মেলনে প্রথমে দলীয় বক্তব্য উপস্থাপন করেন নবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল জাহান চৌধুরী।


অন্যান্য সংবাদ
Theme Created By ThemesDealer.Com
error: কপি করা নিষেধ !
error: কপি করা নিষেধ !