Logo

নবীগঞ্জে ‌দুর্বৃত্তদের দেয়া আগুনে ১৫ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি

করেসপন্ডেন্ট,নবীগঞ্জ
জাগো নিউজ : শুক্রবার, জুন ১২, ২০২০

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলায় দুর্বৃত্তদের দেয়া আগুনে গরু, ছাগল, হাস, মুরগি, ধান, চালসহ পুরো বিল্ডিং পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে অন্তত ১৫ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা গেছে। ঘটনার খবর পেয়ে নবীগঞ্জ থানার একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ঘটনায় নবীগঞ্জে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার গভীর রাতে উপজেলার কুর্শী ইউনিয়নের রাইয়াপুর গ্রামে এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ।

সরেজমিন গিয়ে জানা যায়, উপজেলার রাইয়াপুর আদর্শ গ্রামের বাসিন্দা হাজী মোস্তফা কামালের বাড়ীতে রাতে বাড়ীর সবাই রাতের খাবার খেয়ে সবাই ঘুমিয়ে পড়েন। রাত অনুমান ২টার দিকে হঠাৎ বাংলো ঘরের বিল্ডিংয়ে আগুনের লেলিহান শিখা দেখে বাড়ীর লোকজন ঘর থেকে বের হয়ে দেখেন চারিদিকে শুধু আগুন আর আগুন। তখন তাদের আত্ম চিৎকারের গ্রামের শত শত লোকজন উপস্থিত হয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা করেছেন। ততক্ষনে পুরো ঘর ভষ্মিভুত হয়ে যায়। অল্পের জন্য গ্রামবাসীর আপ্রান চেষ্টায় মেইন ঘর আগুনে পুড়া থেকে রক্ষা পেয়েছে। আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায় ঘরে থাকা ১টি, গরু, ১ ছাগল, ৭০/৮০ হাস মুরগি পুড়ে ছাই হয়েছে। আরো ৫টি গরুর শরীর প্রায় পুরে গেছে। এ ছাড়া ১শত ৫০মন শুকানো ধান, ২০ মন চাল, পানির মেশিন, মটর, সেলাই মেশিন,। প্রাথমিক ভাবে ১৫ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ঘটনার খবর পেয়ে নবীগঞ্জ থানার এস আই সম্রাট আহমদের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এছাড়াও অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে যাওয়া ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন নবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ক্বাজী ওবাদুল কাদের হেলাল, ইনাতগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বজলুর রশিদ, নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ সরওয়ার শিকদারসহ অনেকেই।

এ ব্যাপারে বাড়ীর গৃহকর্তা মোস্তফা কামাল ‘‘জাগো নিউজ’’কে জানান, আমার মেয়ের জামাই কুর্শী গ্রামের আমেরিকা প্রবাসী মখছদ মিয়ার ছেলে মিজান আহমদের সাথে মেয়ের কাছে যৌতুক চাওয়ার ঘটনা নিয়ে বিরোধ চলছে। বর্তমানে আমার মেয়ে আমার বাড়ীতেই অবস্থান করছে। এ ঘটনায় মেয়ের জামাই মিজান ক্ষীপ্ত হয়ে আমি আমার মেয়েসহ পরিবারের সবাইকে বিভিন্ন হুমকি ধামকি দিয়ে আসছিল। ওই দিন রাতে ও মিজান তার সাথে অঞ্জাতনামা আরো ২ যুবককে নিয়ে আমাদের বাড়ীর আশেপাশে ঘুরাঘুরি করতে দেখা গেছে।

ইনাতগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বজলুর রশিদ ‘‘জাগো নিউজ’’কে বলেন, খুবই দুঃখজনক ও মর্মান্তিক ঘটনা। সুষ্ট তদন্ত করে প্রকৃত অপরাধীদের গ্রেফতার করার জন্য প্রশাসনের কাছে অনুরোধ করছি।

এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার এস আই সম্রাট আহমদ ‘‘জাগো নিউজ’’কে বলেন, অভিযোগ দেয়া হলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্যান্য সংবাদ
ThemeCreated By ThemesDealer.Com
error: কপি করা নিষেধ !
error: কপি করা নিষেধ !