Logo
শিরোনাম :
পাঁচ হাজার বন্যার্তদের মুখে খাবার তোলে দিল ‘ইউনাইটেড নবীগঞ্জ’ বাংলাদেশে স্বপ্নের পদ্মা সেতু’র উদ্বোধন, গ্রিসে উদযাপন করল দূতাবাস নবীগঞ্জে বন্যার পানিতে ভেসে আসলো যুবকের লাশ পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে নবীগঞ্জ থানার আনন্দ র‌্যালী শ্রেষ্ঠ হিসেবে শুদ্ধাচার পুরস্কারে জন্য মনোনীত হলেন নবীগঞ্জের ইউএনও শেখ মহিউদ্দিন নবীগঞ্জে বন্যার্তদের মাঝে আব্দুর রহমান ফাউন্ডেশনের আর্থিক সহায়তা প্রদান দেশে বন্যায় মানুষ কষ্টে আছে : সরকার পদ্মাসেতু উদ্বোধনে আমোদ-ফুর্তিতে ব্যস্ত-ড. রেজা কিবরিয়া ‘শুকনো জায়গায় মাকে কবর দিও’ নবীগঞ্জে উল্টে গেলো বন্যার্তদের খাদ্যবাহী ট্রাক নবীগঞ্জে ভয়াবহ রূপ নিয়েছে বন্যা : শতাধিক গ্রাম প্লাবিত : সবাইকে এগিয়ে আসার আহবান

নবীগঞ্জে টমেটো ও শিম চাষ পরিদর্শনে কৃষি মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিদল

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
জাগো নিউজ : শনিবার, ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

নবীগঞ্জ উপজেলার দত্তগ্রাম ও বুড়িনাও এলাকায় টমেটো ও শিম চাষ পরিদর্শন করেছেন কৃষি মন্ত্রণালয়ের একটি প্রতিনিধি দল।
বৃহস্পতিবার দুপুরে কৃষি মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব ও এনএটিপি-২ প্রকল্পের উপ-প্রকল্প পরিচালক ড. রনজিৎ কুমার সরকার ওএমই’র উপ-পরিচালক ড. গৌর গোবিন্দ দাশ, রিসার্চ এক্সটেনশন লিংকেজ স্পেশালিষ্ট ড. গৌর পদ দাস, মনিটরিং এন্ড ইভালুয়েশন স্পেশালিষ্ট ড. শান্তনা হালদার, মোঃ নুরুল ইসলাম ভূইয়াঁ ও ড. মোঃ নওসের আলী সরদার।
কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়- চলতি রবি মৌসুমে ন্যাশনাল এগ্রিকালচারাল টেকনোলজি প্রোগ্রাম ফেজ -২ প্রজেক্টের আওতায় সিআরজি ক্যাটাগরিতে হবিগঞ্জের ০৪ টি উপজেলায় উচ্চ মূল্যের ফসল ও উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি প্রযুক্তির আওতায় টমেটো, শিম, সরিষা প্রভৃতি প্রদর্শনী প্রদান করা হয়। সিআইজি কৃষক-কৃষাণীদের আওতায় এসব ফসল আবাদ বাস্তবায়ন করা হয়। কার্যক্রম পরিদর্শন ও মূল্যায়নে এসে পরিদর্শন টিমের সদস্য ও পরামর্শকগণ নবীগঞ্জে কৃষিতে চ্যালেঞ্জ ও করণীয় সম্পর্কে হাওড় পাড়ের কৃষক-কৃষাণীদের সাথে মতবিনিময় করেন। এসময় পুষ্টি-স্বাস্থ্য সচেতনতা বৃদ্ধিসহ দলগতভাবে এবং সমিতি গঠনের মাধ্যমে কৃষিকে সমৃদ্ধ করার বিষয়ে গুরুত্বারোপ করা হয়েছে।
সরেজমিনে দেখা যায়- নবীগঞ্জ সদর ইউনিয়নের মকার হাওড় সংলগ্ন দত্তগ্রামের কৃষক ফয়জুল বারী মামুন মকার হাওড়ের পাড়ে টমেটো আবাদ করে অসাধ্য সাধন করে দেখিয়েছেন। তিনি একত্রিশ হাজার টাকা খরচ করে এ পর্যন্ত ৪০ হাজার টাকার টমেটো বিক্রি করেছেন। জমিতে যে ফলন আছে তা থেকে তিনিও আরও অন্তত বিশ হাজার টাকার টমেটো বিক্রি করতে পারবেন বলে আশা করছেন। তাকে অনুসরণ করে আরও কৃষক সবজি আবাদে এগিয়ে আসলে উৎপাদন খরচ আরও কমে যাবে বলে উপজেলা কৃষি অফিসার এ কে এম মাকসুদুল আলম জানান।
পানিউমদা ইউনিয়নের কৃষাণী নারীরাও এখন শিম চাষে এগিয়ে আসছেন। পরিদর্শকরা শাপলা বেগমের শিমের জমি পরিদর্শন করে কৃষাণীদের আরও উদ্বুদ্ধ করেন এবং ঝলক সিআইজি কৃষক দলের সাথে মতবিনিময় করেন। পরিদর্শনকালে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত উপপরিচালক (উদ্যান) নয়নমনি সূত্র ধর, উপজেলা কৃষি অফিসার, এ, কে, এম মাকসুদুল আলম,  উপজেলা সমবায় অফিসার মোঃ হাফিজুল ইসলাম ও উপ-সহকারি  কৃষি কর্মকর্তা মোঃ মাহবুব আলম ও আলামিন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্যান্য সংবাদ
Theme Created By ThemesDealer.Com
x
error: কপি করা নিষেধ !
x
error: কপি করা নিষেধ !