Logo
শিরোনাম :
বানিয়াচংয়ে আড়াই মাসের শিশুকে হত্যা : চাচীর স্বীকারোক্তি মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ পিতা ও তার বন্ধুর বিরুদ্ধে : গ্রেফতার দুই নবীগঞ্জে একরাতে তিন মন্দিরে চুরি : খোয়া গেল মূর্তিসহ আসবাবপত্র নবীগঞ্জে মধ্যরাতে দুই কাভার্ডভ্যানের সংঘর্ষে প্রাণ গেল চালকের বাংলাদেশি শ্রমিকদের জন্য উন্মুক্ত হচ্ছে গ্রিসের শ্রমবাজার নবীগঞ্জে বিদ্রোহী প্রার্থী হয়ে আ.লীগের সভাপতিসহ বহিষ্কার হলেন যারা… গ্রিসে দূতাবাসের উদ্যোগে বাংলাদেশিদের জন্য রন্ধন শিল্পের ওপর মৌলিক প্রশিক্ষণ আলোচনায় বর্তমান ইউপি সদস্য আরজদ আলী লাল-সবুজ সমাজ কল্যাণ পরিষদের উদ্যোগে পঞ্চম মেধা-বৃত্তি অনুষ্ঠিত নবীগঞ্জে তেলের লরি ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষ : নিহত ২

নবীগঞ্জের মাদ্রাসা শিক্ষক মুকিত জঙ্গী সংগঠন আনসার আল ইসলামের সদস্য !

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট
জাগো নিউজ : রবিবার, মে ৯, ২০২১

নবীগঞ্জের হেফাজত নেতা মাওলানা হাফেজ আব্দুল মুকিতকে আটকের ৭দিন পর গ্রেফতার দেখিয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

গতকাল শনিবার (৮ মে) সন্ধ্যায় ঢাকার মোহাম্মদপুরে বছিলায় অভিযান চালিয়ে নবীগঞ্জের মাদ্রাসা শিক্ষক আব্দুল মুকিতসহ ৪জনকে গ্রেফতার করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। গ্রেফতারকৃত ৪জন নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের সদস্য বলে দাবী করছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। গ্রেফতারকৃত ৪জন পুলিশ ও বিজিবির ওপর ‘হামলার পরিকল্পনা’ করছিল বলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ভাষ্য।

রবিবার (৯ মে) বিকেলে পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের ইনভেস্টিগেশন বিভাগের আয়োজনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য নিশ্চিত করেন কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের প্রধান উপ মহাপরিদর্শক মো. আসাদুজ্জামান ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ থানার মারকাজুস সুন্নাহ আল ইসলামিয়া মাদরাসার শিক্ষক আব্দুল মুকিত (২৯), রাজধানীর অতীশ দীপঙ্কর বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএর ছাত্র জসিমুল ইসলাম জ্যাক (২৫), সিলেটের আল হিদায়া ইসলামিক ইনস্টিটিউটের ছাত্র আমিনুল হক (২০) এবং সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের অনার্সের শিক্ষার্থী সজীব ইখতিয়ার (২০)। গ্রেফতারের সময় তাদের হেফাজত হতে ১টি ব্যাগ, ১টি চাপাতি, ৫টি স্মার্ট ফোন ও ২টি ল্যাপটপ উদ্ধার করা হয়।

কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের প্রধান উপ মহাপরিদর্শক মো. আসাদুজ্জামান সংবাদ সম্মেলনে বলেন, “জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের গ্রেফতারকৃত সদস্যরা ঢাকা ও সিলেটে পুলিশ ও বিজিবির টহল টিমে হামলার পরিকল্পনা করেছিল। এজন্য তারা রেকিও করে।”

গ্রেফতার ওই চারজন এবং তাদের অন্য সদস্যরা ‘সায়েন্স প্রজেক্ট’ নামে একটি মেসেঞ্জার গ্রুপ খুলে নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ রাখতেন। ওই গ্রুপের দুইজন ইতোমধ্যে আফগানিস্তানে চলে গেছেন এবং বাকিরাও দেশে কোনো ‘নাশকতা ঘটিয়ে’ আফগানিস্তানে চলে যাওয়ার ‘প্রস্তুতিতে ছিলেন’ বলে পুলিশের এই বিশেষায়িত ইউনিটের ভাষ্য।

জঙ্গিরা হঠাৎ কেন বিজিবিকে নিশানা করল- এমন প্রশ্নের জবাবে আসাদুজ্জামান বলেন, “জঙ্গিরা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে তাদের হামলার লক্ষ্য হিসেবে রেখেছে।” এ দলের জঙ্গিদের আফগানিস্তানে ‘হিজরত’ করা নিয়ে এক প্রশ্নে ডিআইজি আসাদুজ্জামান বলেন, “আপনারা জানেন, আমাদের দেশে যে কটি জঙ্গি সংগঠন সক্রিয়, তাদের অধিকাংশই আল-কায়েদার সঙ্গে তাদের সংশ্লিষ্টতা রয়েছে বলে দাবি করে।

“আনসার আল ইসলাম উপমহাদেশের আল-কায়েদার শাখা বলে দাবি করে। সেই সূত্র ধরেই তারা হয়ত আফগানিস্তানে হিজরত করতে গিয়ে থাকতে পারে। তবে এটা তাদের ভাষ্য, এ বিষয়ে আমরা এখনও নিশ্চিত হতে পারিনি।” আরেক প্রশ্নের জবাবে সিটিটিসি প্রধান বলেন, “তাদের পরিকল্পনা ছিল অক্সিজেন গ্যাস সিলিন্ডারের মাধ্যমে বড় ধরনের বিস্ফোরণ ঘটানো। এ বিষয়টি তাদের পরিকল্পনা পর্যায়ে ছিল।” সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, গ্রেফতার ওই ‘জঙ্গিরা’ সম্প্রতি সংগঠনের নেতাদের নির্দেশে সিলেটের কোতোয়ালি থানা এলাকায় একটি আবাসিক হোটেলে ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা করে হোটেল ম্যানেজারকে আহত করে পালিয়ে যায়। ওই চারজনের সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে খোঁজ-খবর করা হচ্ছে বলে জানান কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের আসাদুজ্জামান। গ্রেফতার চারজনকে পরে ঢাকার আদালতে নিয়ে যায় পুলিশ। তাদের ১০ দিন হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদের আবেদন করে কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট। শুনানি শেষে বিচারক মাসুদ-উর-রহমান তাদের সাত দিন হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ দেন। আসামিদের পক্ষে কোনো আইনজীবী ছিলেন না।

মাদ্রাসা শিক্ষক ও স্থানীয় হেফাজত নেতাদের দাবী, নবীগঞ্জ উপজেলার করগাঁও ইউনিয়নের ছোট শাখোয়া গ্রামের রাঙ্গা মিয়ার ছেলে হাফেজ মাওলানা আব্দুল মুকিত ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলন (চরমোনাই) এর সঙ্গে জড়িত রয়েছেন। প্রায় দুই বছর আগে সিলেট থেকে নবীগঞ্জস্থ তার জন্মস্থান শাখোয়া বাজার সংলগ্ন এলাকায় মারকাযুস সুন্নাহ আল ইসলামিয়া মাদরাসা প্রতিষ্ঠা করেন তিনি। প্রতিষ্ঠাকাল থেকেই তিনি ওই মাদরাসার মুহতামিমের দায়িত্ব পালন করে আসছেন। সম্প্রতি সারা দেশে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আন্দোলনের অংশ হিসেবে নবীগঞ্জ শাখার বিভিন্ন কর্মসূচিতে তাকে সরব ভূমিকা পালন করতে দেখা গেছে।

গত (১ মে) দিবাগত রাত ২টার দিকে ঢাকা থেকে আসা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা নবীগঞ্জ উপজেলার শাখোয়া বাজারস্থ মারকাযুস সুন্নাহ আল ইসলামিয়া মাদরাসা থেকে হাফেজ আব্দুল মুকিতকে আটক করে ঢাকায় নিয়ে যায়। এ সময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা মাদরাসায় অবস্থানরত অন্যান্য শিক্ষকদের জানান তারা ঢাকার ডিবি পুলিশের লোক।

ওই সময় নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ডালিম আহমদ জানান, এ বিষয়ে নবীগঞ্জ থানাকে কিছু অবহিত করা হয়নি। তবে তিনি জেনেছেন যে ঢাকা থেকে আসা ডিবি পুলিশের একটি টিম মাওলানা মুকিতকে আটক করেছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্যান্য সংবাদ
ThemeCreated By ThemesDealer.Com
x
error: কপি করা নিষেধ !
x
error: কপি করা নিষেধ !