Logo
শিরোনাম :
করোনায় আক্রান্তদের সুস্থতা কামনায় হবিগঞ্জ জেলা তাঁতলীগের দোয়া ও মিলাদ মাহফিল এমপি মিলাদ গাজীর রোগমুক্তি কামনায় জেলা তাঁতলীগ সভাপতির উদ্যোগে মিলাদ মাহফিল এমপি মিলাদ গাজীর রোগমুক্তি কামনায় যুবলীগ নেতার উদ্যোগে দোয়া মাহফিল হবিগঞ্জের রশিদপুর গ্যাসফিল্ডে অগ্নিকাণ্ড পানিতে ডুবে শিশুর প্রাণহানি মাধবপুরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে এক ব্যক্তিকে কারাদণ্ড পিকআপ ভ্যান কেড়ে নিল ছাত্রলীগ নেতার প্রাণ করোনা ভাইরাস : শনাক্তের নতুন রেকর্ড : মৃত্যু ৬৩ ‘শিশুবক্তা’ রফিকুল মাদানীকে আটক করেছে র‌্যাব নবীগঞ্জে বিএনপি নেতা নুরুল আমিনের বিরুদ্ধে জলমহাল নিয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগ !

নবীগঞ্জে অটোরিকশা ছিনতাই করতে চালক সেজুকে হত্যা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট / ১৮৮৩ বার পঠিত
জাগো নিউজ : বৃহস্পতিবার, ১২ নভেম্বর, ২০২০

নবীগঞ্জের চাঞ্চল্যকর অটোরিকশা চালক সেজু হত্যাকাণ্ডের ক্লু উদঘাটন করেছে পুলিশ। ২৪ অক্টোবর অটোরিকশা ছিনতাই করতে চালক আবিদ উল্লাহ সেজুর হাতের কব্জি ও পায়ের রগ কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এরপর লাশ জমিতে ফেলে রেখে নিয়ে গেছে অটোরিকশা।

এ ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তাদের মধ্যে আমির মিয়া নামে একজন আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নূরুল হুদার আদালতে তার জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়। বৃহস্পতিবার বিকেলে পুলিশ সুপারের সম্মেলন কক্ষে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার প্রশাসন আনোয়ার হোসেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার পারভেজ আলম চৌধুরী।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার প্রশাসন আনোয়ার হোসেন জানান, ২৪ অক্টোবর সন্ধ্যায় নবীগঞ্জ শহর থেকে ১শ’ টাকায় একটি অটোরিকশা ভাড়া করে সোহাগ, শোয়েব মিয়া এবং রুবেল মিয়া নামে ৩ যুবক। গাজীরটেক পয়েন্ট থেকে আমির মিয়া নামে আরও একজন উঠে। তারা গাড়িটি নিয়ে পূর্ব তিমিরপুর এলাকায় একটি নির্জন স্থানে নিয়ে গাড়িটির চালক আবিদ উল্লাহ সেজুর গলায় গামছা দিয়ে ফাঁস লাগায়। একপর্যায়ে একটি ছুরি দিয়ে তার হাতের কব্জি ও পায়ের রগ কেটে ফেলে। ইট দিয়ে মাথায় আঘাত করে। কিছুক্ষণের মধ্যেই তিনি মারা গেলে দুর্বৃত্তরা লাশ পাশর্^বর্তী একটি জমিতে ফেলে গাড়ি নিয়ে পালিয়ে যায়। ২৭ আগস্ট তার অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।
এ ঘটনায় ওইদিনই নিহতের ভাই রাজু বাদি হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। নবীগঞ্জ থানার ওসি আজিজুর রহমানের নেতৃত্বে এস আই শামসুল ইসলাম তৎপরতা চালান। সিসি ক্যামেরা ফুটেজ ও তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে পুলিশ আমির মিয়া, শোয়েব মিয়া ও সোহগকে গ্রেফতার করে। তাদের মধ্যে আমির মিয়া আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। পুলিশের আবেদনের প্রেক্ষিতে শোয়েব মিয়াকে ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। এ ঘটনায় মামলার অন্যতম স্বাক্ষি হাসিনা বেগম পলাতক আসামী রুবেলের বোন। হাসিনা বেগমও আদালতে নিজের জবানবন্দি দিয়েছেন। ছিনতাই হওয়া গাড়িটি এখনও উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। তবে রুবেলকে গ্রেফতার করতে পারলে এটি উদ্ধার করা সম্ভব হবে বলে আশা প্রকাশ করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার।


অন্যান্য সংবাদ
Theme Created By ThemesDealer.Com
error: কপি করা নিষেধ !
error: কপি করা নিষেধ !