Logo
শিরোনাম :
স্কটিশ পার্লামেন্টে প্রথম বাংলাদেশী এমপি নির্বাচিত হলেন নবীগঞ্জের ফয়ছল চৌধুরী ইফতারির জন্য নবীগঞ্জের শরিফাকে ‘হত্যা’, স্বামী-শ্বাশুড়ি আটক নবীগঞ্জ পৌরসভায় ১৫শ অসহায় মানুষের মাঝে প্রধানমন্ত্রী অর্থ সহায়তা বিতরণ বাউসা ইউনিয়নে ১৫শ মানুষের মাঝে ৪৫০ টাকা করে নগদ অর্থ সহায়তা বিতরণ আউশকান্দিতে ৫শ অসহায়দের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর অর্থ সহায়তা বিতরণ নবীগঞ্জের দীঘলবাকে প্রধানমন্ত্রীর উপহার নগদ অর্থ বিতরণ করলেন এমপি মিলাদ গাজী এক মুঠো হাসি’র উদ্যোগে বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় কর্মসূচি সম্পন্ন হবিগঞ্জ শহরে সাড়ে ৪ হাজার মানুষকে সরকারি সহায়তা প্রদান নবীগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধা ও ২ প্রবাসীর ভূমি দখল করে পুকুর খননের অভিযোগ ! নবীগঞ্জে মাদকের আস্তানায় ইউএনও’র অভিযান : ৪ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড

ধর্মপাশায় হয়রানি ও গ্রেফতার বন্ধে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা

করেসপন্ডেন্ট,ধর্মপাশা / ১০১ বার পঠিত
জাগো নিউজ : বুধবার, ২০ জানুয়ারি, ২০২১

সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন ও তার ছোট ভাই ধর্মপাশা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হোসেন রোকনের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার ষড়যন্ত্র ও দলীয় নেতাকর্মীদের হয়রানি মূলক গ্রেফতার বন্ধের প্রতিবাদে সুনামগঞ্জের ধর্মপাশায় মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার সকাল ১১টার দিকে উপজেলা পরিষদের সামনের সড়কে এ কর্মসূচির আয়োজন করেন উপজেলা আওয়ামীলীগ।

মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভায় উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ফখরুল ইসলামের সভাপতিত্ব ও সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমদ বিলকিসের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আইনজীবী আব্দুল হাই তালুকদার, সেলবরষ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি শাহ আলাউদ্দিন, উপজেলা শ্রমীকলীগের সভাপতি সাফায়াত হোসেন লিটন, জয়শ্রী ইউপি চেয়ারম্যান সঞ্জয় রায় চৌধুরী, সুখাইড় রাজাপুর উত্তর ইউপি চেয়ারম্যান ফরহাদ আহমেদ, উপজেলা পরিষদ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ইয়াসমিন আক্তার, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আইনজীবী ইকরাম হোসেন, ছাত্রলীগ সভাপতি দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ।

উল্লেখ্য গত (৭ জানুয়ারী) বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার সুনই জলমহালে হামলা অগ্নিসংযোগ ও এক জেলেকে গলা কেটে হত্যার ঘটনায় ওইদিনেই ২৩জনকে আটক করে পুলিশ। পরে তাদের মধ্যে দুজন অপ্রাপ্তবয়স্ক থাকায় তাদেরকে ছেড়ে দিয়ে ২১জনকে ৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়। পরে শনিবার স্থানীয় সাংসদসহ ৬৩জনের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ করা হলে মালমা না নেয়ার অভিযোগ উঠে ওসি দেলোয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে। হত্যাকা-ের ৩দিন পর রোববার পুলিশ নিজেই বাদি হয়ে মামলা রুজু করে ওইদিনেই ডিবি পুলিশের সহায়তায় ৩জনকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠায়। ৫৪ ধারায় গ্রেফতার হওয়া ২১ জনের মধ্যে ১৭ জনকে অব্যাহতি দিয়ে বাকিদের মামলায় আসামী করা হয়।


অন্যান্য সংবাদ
Theme Created By ThemesDealer.Com
error: কপি করা নিষেধ !
error: কপি করা নিষেধ !