Logo

গ্রীস দূতাবাসের সচিব হিসেবে নবীগঞ্জের ইউএনও বিশ্বজিত কুমার পালের পদায়ন

ছনি চৌধুরী
জাগো নিউজ : বুধবার, জুলাই ১৫, ২০২০

নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা  বিশ্বজিত কুমার পাল বাংলাদেশ দূতাবাস এথেন্স গ্রীসের প্রথম সচিব (শ্রম) হিসেবে পদোন্নতি হয়েছে।

গত মঙ্গলবার রাতে বাংলাদেশ সরকারের জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রেষণ-১ অধিশাখার উপসচিব  মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ স্বাক্ষরিত এক পত্রে এ প্রজ্ঞাপন জারী করা হয়।

২০১৯ সালের ২২ ডিসেম্বরে গোয়াইনঘাট উপজেলা থেকে নবীগঞ্জ উপজেলায় “উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা” হিসেবে যোগদান করেন বিশ্বজিত কুমার পাল। যোগদানের পর থেকে সততা ও কর্মদক্ষতায় আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন ইউএনও বিশ্বজিত কুমার পাল।

নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে  ৬ মাস ২৪ দিন দায়িত্ব পালনকালে, নবীগঞ্জ শহরের যানযট দূর করণে সুন্দর্য্যবর্ধনের লক্ষ্যে শহরের উপর থেকে যানবাহনের স্ট্যান্ড ও অবৈধ দোকানপাট অপসারণ করেন।

দীঘলবাক ইউনিয়নের কসবায় ও আউশকান্দি ইউনিয়নের পারকুল গ্রামে অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধ জেল-জরিমানা, অবৈধ ব্রিকফিল্ড ধ্বংস, ঐতিহাসিক শাখাবরাক নদীর দখলদার উচ্ছ্বেদ, করোনাকালে দিনরাত মাঠ পর্যায়ে মানুষকে সচেতন করতে করেছেন নানা আহবান, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি ও স্বাস্থ্যবিধি আইন অমান্য করায় অনেক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে করেছেন জরিমানা।

এছাড়াও অনেক উল্লেখ্যযোগ্য ঘটনার জন্মদিয়ে সবসময় সর্বত্র আলোচনায় ছিলেন নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিশ্বজিত কুমার পাল।

করোনাকালে সর্বদা মাঠ পর্যায়ে থেকে কাজ করার সুফল হিসেবে হবিগঞ্জ জেলার মধ্যে একমাত্র ইউএনও হিসেবে শুদ্ধাচার পুরষ্কার-২০২০ মনোনীত হন। স্বল্প সময়ে মেধা, পরিশ্রম সততা ও কর্মদক্ষতা দিয়ে মনজয় করেছেন নবীগঞ্জবাসীর।

ইতিপূর্বে ২০১৭ সালে মৌলভীবাজার জেলার শ্রেষ্ঠ সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিসাবে প্রথম শুদ্ধাচার পুরষ্কার পান। সেই সময় তিনি শ্রীমঙ্গলের এসিল্যান্ড হিসাবে কর্মরত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ইতিপূর্বে বিশ্বজিত কুমার পাল গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা,শ্রীমঙ্গল উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) দায়িত্ব পালন করেন


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্যান্য সংবাদ
ThemeCreated By ThemesDealer.Com
error: কপি করা নিষেধ !
error: কপি করা নিষেধ !