Logo
শিরোনাম :
বাউসা ইউনিয়ন পরিষদকে সৌদি দূতাবাস বানিয়ে অভিনব প্রতারণা ॥ আটক ৩ বাহুবলে গাছ খাওয়ায় ছাগল আটক, এমপি কল দেয়ার পরও ছাড়েনি পুলিশ কানাডায় সড়ক দুর্ঘটনায় বীর মুক্তিযোদ্ধা সুরঞ্জন দাশ স্ত্রীসহ নিহত গ্রিসে বাংলাদেশ দূতাবাসে বঙ্গমাতা ও শেখ কামাল এর জন্মবার্ষিকী পালন নবীগঞ্জে মায়ের স্বপ্ন পূরণে হেলিকপ্টারে চড়ে বরের বাড়ি গেলেন সুরভী খোঁজ মিলছে না সিলেট ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সভাপতির এবার মাল্টার ভিসা মিলবে ঢাকা থেকেই! গ্রিসে ১৫ হাজার অনিয়মিত বাংলাদেশি যেভাবে পাবেন বৈধতা! নবীগঞ্জ-হবিগঞ্জ রুটে বাস চলাচল বন্ধ, যাত্রীদের ভোগান্তি : চালু হবে কবে ! তুর্কি থেকে গ্রিসে অনুপ্রবেশ: দুর্ঘটনায় সিলেটের কওছর মেম্বার নিহত, আহত ৩

গ্রিসে হবিগঞ্জের ওয়াহিদের খোঁজ নেই, স্বজনদের অভিযোগ ‘হত্যা’

নিজস্ব প্রতিবেদক
জাগো নিউজ : মঙ্গলবার, জুলাই ১৯, ২০২২

 ইউরোপের দেশ গ্রিসে গত ১০ দিন ধরে খোঁজ মিলছে না মোঃ ওয়াহিদ নামের এক রেমিট্যান্স যোদ্ধার। তার পরিবার ও গ্রিসে থাকা স্বজনদের অভিযোগ অর্থ আত্মসাতের জন্য তাকে গুম করে হত্যা করেছে একটি চক্র।

এ ঘটনায় স্থানীয় থানায় লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ছাড়া জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা ও আত্মসাতকৃত অর্থ উদ্ধারের জন্য এথেন্সে অবিস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন নিখোঁজের মামা রমিজ মিয়া। নিখোঁজ ওয়াহিদ হবিগঞ্জ জেলার অনন্তপুর গ্রামের সিদ্দিক আলীর পুত্র।


অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ওয়াহিদ দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে গ্রিসে বসবাস করে আসছিলেন। দীর্ঘদিন ধরে গ্রিসের লাপ্পায় একটি বাংলাদেশি মুদি দোকানে কর্মরত ছিলেন। দোকনটি পরিচালনা করতেন ইউনুস মিয়া ওরফে লিটন, মোঃ ইদ্রিস, কুদ্দুস মিয়া তারা তিন ভাইসহ তাদের বন্ধু সুলতান আহমেদ ও পলাশ মিয়া। তাদের দোকানে কর্মরত ওয়াহিদ এর সততায় সেখানে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের মনে জায়গা করে নেন। তাই বিশ্বাস করে তার মাধ্যমে রেমিট্যান্স যোদ্ধাদের উপার্জিত অর্থ জমা রাখতেন এবং দেশেও পাঠাতেন। গেল ঈদুল আজহার আগে তার কাছে প্রায় ৬১ জন বাংলাদেশি প্রায় লক্ষাধীক ইউরো জমা রাখেন। বাংলাদেশের টাকার হিসাবে প্রায় এক কোটি টাকারও বেশি। ওয়াহিদ সেই ইউরোগুলো তার কর্মরত প্রতিষ্ঠানের মালিক মোঃ ইদ্রিস, কুদ্দুস মিয়ার নিকট জমা রাখেন।
অভিযোগে আরো উল্লেখ করা হয়, ওয়াহিদ কর্তৃক জমাকৃত রেমিট্যান্স যোদ্ধাদের আমানত এর পরিমান বেশি দেখে তা হাতিয়ে নেয়ার পরিকল্পনা করেন লিটন, ইদ্রিস, কুদ্দুস, সুলতান ও পলাশ মিয়াসহ চক্রটি। এই পরিকল্পনা অনুযায়ী ওয়াহিদকে হত্যা করে লাশ গুম করার অভিযোগ উঠেছে তিন ভাই ও তাদের দুই বন্ধুর বিরুদ্ধে। এ তথ্য এখন সেখানে বসবাসরত বাংলাদেশিদের মাঝে ছড়িয়ে পড়েছে। ওয়াহিদের স্বজনরা সেখানে গেলে এমনই বর্ণনা দেন সেখানে বসবাসরত বাংলাদেশিরা। এ ঘটনায় স্থানীয় থানায় লিখিত অভিযোগ দিলে তাৎক্ষনিকভাবে অভিযান করে একজনকে আটক করেছে পুলিশ। এরপর এথেন্সের প্লাথিয়া ভাতিসে অবস্থিত দোকানটিও বন্ধ করে আত্মগোপনে চলে যায় লিটন।
এমনপরিস্থিতিতে জড়িতদের সনাক্ত করে ওয়াহিদকে উদ্ধার করাসহ আত্মসাৎকারীদের কবল থেকে প্রবাসীদের অর্থ উদ্ধার করে তা ফিরিয়ে দিতে বাংলাদেশ দূতাবাস ও গ্রিক প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন গ্রিসে থাকা ওয়াহিদের স্বজন, এলাকাবাসী ও সচেতন মহল।

 

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

অন্যান্য সংবাদ
Theme Created By ThemesDealer.Com
x
error: কপি করা নিষেধ !
x
error: কপি করা নিষেধ !