Logo

কিশোরীকে টানা দুই সাপ্তাহ আটকে রেখে ধর্ষণ !

করেসপন্ডেন্ট,সিলেট
জাগো নিউজ : বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ৩, ২০২০

image_pdfimage_print

সিলেটে এক কিশোরীকে অপহরণের পর ১৫ দিন আটকে রেখে ধর্ষণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে । এমন ঘটনায় এক যুবক ও তার সহযোগী নারীকে আটক করেছে পুলিশ। আটকের পর আসামীদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার তাদেরকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। অপরদিকে, ভিকটিম সিলেট এম.এ.জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসি বিভাগে চিকিৎসাধীন।

পুলিশ জানায়, সিলেটের সদর উপজেলার (জালালাবাদ থানধীন) মইয়ারচর গ্রামের মৃত আব্দুল মালিকের ছেলে সাদিকুর রহমান (২২) গত ১৮ আগস্ট দুপুর দেড়টার সময় একই এলাকার ১৪ বছরের এক কিশোরীকে অপহরণ করে। পরে তার সহযোগী এক মহিলার বাসায় আটকে রেখে ১৫দিন যাবত জোরপূর্ব ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করে সাদিক।

এদিকে, কিশোরী নিখোঁজের পর জালালাবাদ থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়। জিডি নং-৭২০ (১৭/০৮/২০২০)। সেই জিডির ভিত্তিতে জালালাবাদ থানার এসআই কাজী জামাল উদ্দিনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ অনুসন্ধান চালিয়ে গত ২ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা ৭টায় সিলেট শাহজালাল মাজার হতে কিশোরীকে উদ্ধার করে।

উদ্ধারের পর ওই কিশোরী পুলিশকে জানায়, সাদিকুর রহমান তাকে অপহরণ করে একটি বাসায় আটকে রেখে ১৬ আগস্ট থেকে ১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বিভিন্ন সময় একাধিকবার ধর্ষণ করে।

পরে ভিকটিমের পিতা আব্দুর নুর বাদি হয়ে জালালাবাদ থানায় মামলা দায়ের (নং-০১, ৩/০৯/২০২০) করেন। মামলা দায়েরের পরপরই জালালাবাদ থানাপুলিশের একটি টিম অভিযান চালিয়ে আজ বৃহস্পতিবার (৩ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৭টায় মইয়ারচর এলাকা থেকে আসামি সাদিকুর রহমান ও তার সহায়তাকারী মহিলা (৪৩)-কে গ্রেফতার করে।

পরে আজ আসামীদেরকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

অন্যান্য সংবাদ
Theme Created By ThemesDealer.Com
x
error: কপি করা নিষেধ !
x
error: কপি করা নিষেধ !