Logo
শিরোনাম :
স্কটিশ পার্লামেন্টে প্রথম বাংলাদেশী এমপি নির্বাচিত হলেন নবীগঞ্জের ফয়ছল চৌধুরী ইফতারির জন্য নবীগঞ্জের শরিফাকে ‘হত্যা’, স্বামী-শ্বাশুড়ি আটক নবীগঞ্জ পৌরসভায় ১৫শ অসহায় মানুষের মাঝে প্রধানমন্ত্রী অর্থ সহায়তা বিতরণ বাউসা ইউনিয়নে ১৫শ মানুষের মাঝে ৪৫০ টাকা করে নগদ অর্থ সহায়তা বিতরণ আউশকান্দিতে ৫শ অসহায়দের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর অর্থ সহায়তা বিতরণ নবীগঞ্জের দীঘলবাকে প্রধানমন্ত্রীর উপহার নগদ অর্থ বিতরণ করলেন এমপি মিলাদ গাজী এক মুঠো হাসি’র উদ্যোগে বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় কর্মসূচি সম্পন্ন হবিগঞ্জ শহরে সাড়ে ৪ হাজার মানুষকে সরকারি সহায়তা প্রদান নবীগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধা ও ২ প্রবাসীর ভূমি দখল করে পুকুর খননের অভিযোগ ! নবীগঞ্জে মাদকের আস্তানায় ইউএনও’র অভিযান : ৪ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড

ইউপি ভবনের প্রতিষ্ঠাতা দাবী করে নামফলক স্থাপন : সংবাদ প্রকাশের পর অপসারণ

করেসপন্ডেন্ট,নবীগঞ্জ / ৮৪১ বার পঠিত
জাগো নিউজ : শনিবার, ৪ জুলাই, ২০২০

‘জাগো নিউজ’ এ সংবাদ প্রকামের পর হবিগেঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার পূর্ব বড় ভাকৈর ইউনিয়নের নব- নির্মিত গেইটে ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আশিক মিয়া এর নামে ভবন প্রতিষ্ঠাতা দাবী করে টানানো নাম ফলক সরিয়ে ফেলা হয়েছে।

শনিবার সকাল থেকে এই নাম ফলক গেইটে আর দেখা যায়নি। বিতর্কিত এই নাম ফলক সরিয়ে ফেলায় এলাকায় স্বস্তির নিশ্বাঃস ফিরেছে জনসাধারনের মনে।

এদিকে একটি সূত্রে জানা যায়, বিতর্কিত এই নাম ফলক টানানো নিয়ে ‘জাগো নিউজ’ সহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হলে বিষয়টি নজরে আসে স্থানীয় প্রশাসনের। পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিশ্বজিত কুমার পাল বিতর্কিত এই নাম ফলক দ্রুত সরিয়ে ফেলার জন্য ইউপি চেয়ারম্যান আশিক মিয়াকে নির্দেশ প্রদান করেন। এরই প্রেক্ষিতে ফলকটি অপসারন করা হয়।

উল্লেখ্য যে ১৯৯৬ সালে আওয়ামিলীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পরে সারা বাংলাদেশে স্থানীয় সরকারের অধীনে প্রত্যেকটি ইউনিয়ন পরিষদের স্থায়ীভাবে ভবন নির্মানের উদ্যোগ গ্রহণ করে এরই ধারাবাহিকতায় ১৯৯৭ সালে বড় ভাকৈর পূর্ব ইউনিয়নের ভবন নির্মিত হয় এদিকে হঠাৎ গ্রামীণ উন্নয়নের বরাদ্দে নব-নির্মিত গেইটে নিজের নামে ভবন প্রতিষ্ঠা দাবী করে একটি বিতর্কিত নাম ফলক টানান উক্ত পরিষদের চেয়ারম্যান আশিক মিয়া এরপরই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ এলাকার সর্বত্র চলে আলোচনা সমালোচনার ঝড়। এদিকে নাম ফলক সরিয়ে ফেলার নির্দেশ প্রদান করায় উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন স্থানীয় ইউনিয়নের জনসাধারণ।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিশ্বজিত কুমার পালের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ‘জাগো নিউজ’কে জানান, ঘটনা জানার পর তাৎক্ষনিক ভাবে চেয়ারম্যান আশিক মিয়াকে ফলকটি সরানোর নির্দেশ দিলে শনিবার সকালেই তিনি অপসারন করেন।


অন্যান্য সংবাদ
Theme Created By ThemesDealer.Com
error: কপি করা নিষেধ !
error: কপি করা নিষেধ !