Logo
শিরোনাম :
বাহুবলে নির্বাচনী গণসংযোগে ছুরিকাঘাতে যুবকের মৃত্যু হারিছ চৌধুরী লন্ডনে নয়, মারা গেছেন ঢাকায়, জানালেন ব্যারিস্টার কন্যা সামিরা দিনারপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ও খেলাধুলার সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠিত নবীগঞ্জ শহরকে যানজট মুক্ত করতে এমপি’র অ্যাকশন পূবালী ব্যাংক গজনাইপুর শাখার ব্যবস্থাপকের বিদায় ও বরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে হঠাৎ আগুন ! নবীগঞ্জে ট্রাকের চাকা ফেটে রিং ছিটকে পড়ে যুবকের মৃত্যু ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের হটস্পট ঢাকা এমপি মিলাদ গাজীর প্রচেষ্ঠায় চালু হচ্ছে সাটিয়াজুরি রেল স্টেশন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

ইউএনও-প্রকৌশলীকে অবরুদ্ধ করে গালিগালাজ :ইউপি চেয়ারম্যান শাহাব উদ্দিন কারাগারে !

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
জাগো নিউজ : বুধবার, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২১

ছাতকের উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবরুদ্ধ করে ফেসবুকে লাইভ সম্প্রচার করে সমালোচিত হওয়া সুনামগঞ্জের ছাতকের সিংচাপইড় ইউনিয়নের বরখাস্তকৃত চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা শাহাব উদ্দিন সাহেলকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তার বিরুদ্ধে উপজেলা পরিষদ চত্বরে প্রকাশ্যে উত্তর খুরমা ইউপি চেয়ারম্যান বিল্লাল আহমদের ওপর হামলার অভিযোগও রয়েছে।

মঙ্গলবার বিকালে সুনামগঞ্জের দায়রা জজ আদালতে হাজির হয়। এ সময় আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। বুধবার এ ঘটনার নিশ্চিত করেন ছাতক থানার ওসি শেখ নাজিম উদ্দিন।

জানা যায়, ২০১৭ সালের ১৭ হাওর রক্ষা বাঁধ নির্মাণকাজের অতিরিক্ত বিল আদায়ের দাবিতে ছাতক উপজেলার তৎকালীন নির্বাহী অফিসার নাছির উল্লাহ খান ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপসহকারী প্রকৌশলী শাহাদাত হোসেনকে অবরুদ্ধ করে ৫০ মিনিট ফেইসবুক লাইভে গালিগালাজ করেন আওয়ামী লীগ নেতা শাহাব উদ্দিন সাহেল।

এ ঘটনায় ছাতক থানায় তার বিরুদ্ধে দ্রুত বিচার আইনে মামলা (নং-১৫) করা হয়। এ ছাড়া তার বিরুদ্ধে ছাতক থানায় পুলিশ এসল্টসহ আরও দুটি মামলা রয়েছে। একটি মামলায় শাহাবউদ্দিন সাহেলকে দুই বছরের সাজা প্রদান করা হয়।

দীর্ঘদিন পলাতক থাকার পর অবশেষে মঙ্গলবার বিকালে আদালতে হাজিরা দিতে গেলে আদালত তাকে জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্যান্য সংবাদ
ThemeCreated By ThemesDealer.Com
x
error: কপি করা নিষেধ !
x
error: কপি করা নিষেধ !