Logo
শিরোনাম :
বাহুবলে নির্বাচনী গণসংযোগে ছুরিকাঘাতে যুবকের মৃত্যু হারিছ চৌধুরী লন্ডনে নয়, মারা গেছেন ঢাকায়, জানালেন ব্যারিস্টার কন্যা সামিরা দিনারপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ও খেলাধুলার সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠিত নবীগঞ্জ শহরকে যানজট মুক্ত করতে এমপি’র অ্যাকশন পূবালী ব্যাংক গজনাইপুর শাখার ব্যবস্থাপকের বিদায় ও বরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে হঠাৎ আগুন ! নবীগঞ্জে ট্রাকের চাকা ফেটে রিং ছিটকে পড়ে যুবকের মৃত্যু ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের হটস্পট ঢাকা এমপি মিলাদ গাজীর প্রচেষ্ঠায় চালু হচ্ছে সাটিয়াজুরি রেল স্টেশন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

অবৈধ গ্যাস সিলিন্ডার কি মৃত্যু ডেকে আনছে ?

জাবেদুর রহমান
জাগো নিউজ : বুধবার, আগস্ট ১৯, ২০২০

আমরা যারা গ্যাসের লাইন থেকে বঞ্চিত বা যেসব এলাকায় এখনও গ্যাস লাইন সরবরাহ করা হয়নি, শুধু তারাই ব্যতিক্রমী পথ হিসেবে গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবহার করে থাকি। আর যারা পল্লী গ্রামে বসবাস কওে : তারাও এখন নিত্যদিনের ব্যবহারের জন্য লাকড়ি বা কয়লার বদলে গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবহার করে থাকে।

বর্তমান সময়ে অতিরিক্ত মাত্রায় গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবহার করা হচ্ছে। কেউ রান্না ঘরে, কেউ রেস্টুরেন্টে কেউ আবার গাড়িতে। যা মানুষের উপকারে আসলে ও, তার অপকারিতা অনেক বেশি। এই গ্যাস সিলিন্ডার প্রতিনিয়ত মানুষকে মৃত্যুর মধ্যে বন্দী করে রাখছে। কখন বিস্ফোরণ হবে কেউ জানে না, কিন্তু সেটা যে বিস্ফোরণ হবেনা তার কোনো নিশ্চয়তা ও কেউ করতে পারেনা। এই প্রতিযোগিতার বাজারে কোনটা ভাল কোনটা খারাপ, সেটা দেখার প্রয়োজন নেই বরং কোনটা কম টাকায় ক্রয় করে, বেশি টাকায় বিক্রি করা যাবে সেটাই সবচেয়ে বড় কথা। যার কারণে বৈধ গ্যাস সিলিন্ডারের পাশাপাশি অবৈধ গ্যাস সিলিন্ডারে পরিপূর্ণ হয়ে গেছে আমাদের বাজারগুলো।

একটা কথা আছে, যত আমদানি তত রপ্তানি। তেমনিভাবে যত বেশি গ্যাস সিলিন্ডার বাজারজাত করা হচ্ছে ততই মানুষের ব্যবহারের চাহিদা বাড়ছে। আমরা অর্থনীতিতে পড়েছিলাম, যদি তোমার একসাথে খাবার ও কাপড় ক্রয় করার প্রয়োজন হয় কিন্তু তোমার কাছে টাকা আছে যেকোন একটি ক্রয় করার মত। ঠিক তখনই খাবার ক্রয় কর আগে। কারণ, আগে তোমাকে বাচঁতে হবে। কিন্তু আজকাল সবকিছুই ব্যতিক্রম। এই পৃথিবীতে যার টাকা আছে তার মনে হয় সবই আছে। বর্তমান বাজারে একটি জিনিসের যখন একাধিক পণ্য থাকবে, তখন মানুষ একটা পর একটা ক্রয় করতে থাকবে। সেটা হোক ভালো আর মন্দ।

তেমনিভাবে, আমাদের দেশেও গ্যাস সিলিন্ডারের একাধিক পণ্য থাকার কারণে, কোনটা ভালো কোনটা খারাপ; সেটা বুঝা খুবই কঠিন ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। সেখানে রয়েছে মেয়াদউত্তীর্ণ ও অবৈধ গ্যাস সিলিন্ডার যার মধ্যে সরকারি অনুমোদন নেই। কিন্তু দুঃখের বিষয় সেগুলো ও বাজারজাত করা হচ্ছে। যার কারণে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনা প্রতিনিয়ত ঘটছে এবং গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে মানুষ মারা যাচ্ছে এমনকি ঘর-বাড়ি ও আগুনে পুরে যাচ্ছে।

সুতরাং, গ্যাস সিলিন্ডার নিরাপদ ভাবে ব্যবহার করার জন্য সরকারের গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নেওয়া খুবই জরুরি। কারণ, গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ ছাড়া অবৈধ ও মেয়াদউত্তীর্ণ গ্যাস সিলিন্ডার বাজার থেকে সরানো সম্ভব না। মানুষের চাহিদা বাড়বে কিন্তু তার জন্য সরকারের কোনটা ভালো জিনিস আর কোনটা খারাপ জিনিস সেটা যাচাই-বাছাই করতে হবে। তাছাড়া ভবিষ্যতে মানুষের ক্ষতি ডেকে যেন না আনে; সেই দিক বিবেচনা করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও কোম্পানিকে সরকারি সার্টিফিকেট প্রদান করতে হবে যাতে গ্যাস সিলিন্ডারে কারণে মানুষের প্রাণহানির ঘটনা না ঘটে।

শিক্ষার্থীঃ নবীগঞ্জ সরকারি কলেজ
ইংরেজি বিভাগ (স্নাতক ৩য় বর্ষ)

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্যান্য সংবাদ
ThemeCreated By ThemesDealer.Com
x
error: কপি করা নিষেধ !
x
error: কপি করা নিষেধ !